টাচ নিউজ ডেস্কঃ রাজধানীতে ভাটারায় ছোলমাইদ এলাকায় বিউটি আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।  বুধবার (৫ জানুয়ারি)  রাত সাড়ে ১১টার দিকে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে দাবি তার স্বামীর। অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ওই গৃহবধূর স্বামী চান মিয়া বলেন, আমি পেশায় একজন রিকশাচালক। রিকশা চালিয়ে বাসায় এসে স্ত্রীর কাছে খাবার চাই। এসময় স্ত্রী তরকারি রান্না করার সময় পুড়িয়ে ফেললে আমি তাকে বকা দেই। পরে রুটি-কলা আনতে দোকানে যাই। বাসায় এসে দেখি ঘরের দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করেও দরজা না খুললে ভেঙে ভেতরে গিয়ে দেখি কাঠের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে রয়েছে স্ত্রী। পাশেই আমার দুই বছরের ছেলে বিপ্লব শুয়ে। পরে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

তিনি জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি, ঝিনাইদহের মহেশপুরে। বর্তমানে ভাটারার ছোলমাইদ এলাকার দাগ নম্বর ১৪৪০ একটি টিনশেড বাসায় থাকেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এক গৃহবধূ ফাঁস লাগানো অবস্থায় হাসপাতালে আসে। আসার পরপরই তিনি মারা যান। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে