টাচ নিউজ ডেস্ক: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে  অসহায় দুস্থ মানুষদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

সোমবার (২৩ আগস্ট) বেলা ১২ টায় উত্তর কাফরুল স্কুল মাঠে অসহায় দুস্থ প্রায় ১৫০০ মানুষের মাঝে এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

এসময় জনপ্রতি ১০ কেজি চাল, ২ কেজি আটা, ২ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি তৈল, ১ কেজি লবণ বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভাপতি জননেতা নির্মল রঞ্জন গুহ। তিনি বলেন, স্বাধীনতার পরাজিত শত্রু,১৫ আগস্ট ও ২১ শে আগস্টের খুনিরা এক অভিন্ন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতে এবং দেশকে পাকিস্তানি ভাবধারায় প্রতিষ্ঠিত করতে পরিকল্পিত ভাবে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে বিশ্ব মানবতার জননী প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছিল। জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন বলেই বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ আলোকোজ্জ্বল সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলছে। কিন্তু ষড়যন্ত্রকারী ঘাতকচক্র বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তিনি সকল নেতাকর্মীকে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি চক্রের অপতৎপরতা রুখে দিতে সবসময় সজাগ থাকার নির্দেশ দেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জননেতা একেএম আফজালুর রহমান বাবু। তিনি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। বাংলার দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে গিয়ে ২১ বার ষড়যন্ত্রকারী ঘাতকচক্রের হামলার শিকার হয়ে মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা শত সহস্র ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছেন। বিলিয়ন ডলারের লবিস্ট আর বিশ্বমোড়লদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে বঙ্গবন্ধু হত্যা ও মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন। ২১শে আগস্টের ঘাতক চক্রকে বিচারের আওতায় এনেছেন। তিনি অবিলম্বে জাতির পিতার পলাতক খুনি ও ২১ শে আগস্টের খুনিদের বিচারের রায় কার্যকরের দাবি জানান। পাশাপাশি ঘটনার নেপথ্যে জড়িত কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচন করে বিচারের আওতায় আনার দাবি করেন। তিনি বলেন ষড়যন্ত্রকারী অপশক্তিচক্র বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতির বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। যেকোন মূল্যে ষড়যন্ত্রকারী অপশক্তি চক্রকে রুখে দিতে হবে। স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিটি নেতাকর্মী বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রশ্নে যেকোন ঝুঁকি নিতে প্রস্তুত আছে।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী, স্থানীয় কাউন্সিলর মতি মোল্লা, সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ইসহাক মিয়া ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান নাঈম।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে