টাচ নিউজ ডেস্ক: দেশীয় চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে ৫ হাজার টন সিদ্ধ চাল আমদানির অনুমতি পেল ১০ টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। সোমবার (৪ জানুয়ারি) খাদ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

অনুমোদনের এ নির্দেশনায় শর্ত দেওয়া হয় হয়, পাঁচ হাজার টন বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানকে এলসি খোলার দশ দিনের মধ্যে বরাদ্দের অর্ধেক ও বিশ দিনের মধ্যে বরাদ্দের সম্পূর্ণ চাল বাজারজাত করতে হবে।

অপরদিকে, ১০ থেকে ২০ হাজার টন বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানকে ঋণপত্র (এলসি) খোলার পনের দিনের মধ্যে অর্ধেক এবং এক মাসের মধ্যে বরাদ্দের পুরো চাল দেশের বাজারে বাজারজাত করতে হবে।

যে সকল প্রতিষ্ঠানকে অনুমতি দেয়া হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে, জয়পুরহাটের হেনা এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টন, দিনাজপুরের রেনু কন্সট্রাকশনকে ১৫ হাজার টন, খুলনার কাজী সোবহান ট্রেডিং করপোরেশনে ১০ হাজার টন, বগুড়ার আলাল এগ্রো ফুড প্রোডাক্টসকে ১০ হাজার টন, আলাল এন্টারপ্রাইজকে পাঁচ হাজার টন, নওগাঁর দীপ্ত এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টন, আকাশ এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টন, ঘোষ অটোমেটিক রাইস মিলকে ১৫ হাজার টন, মেসার্স নুরুল ইসলামককে ১০ হাজার টন এবং জগদীশ চন্দ্র রায়কে ১০ হাজার টন।

এছাড়া, সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ ভাঙা দানাবিশিষ্ট সিদ্ধ চাল আমদানি করা যাবে বলে শর্ত দেয়া হয়। চাল আমদানির শর্তে আরো বলা হয়েছে, বরাদ্দপত্র ইস্যুর ৭ দিনের মধ্যে ঋণপত্র (এলসি) খুলতে হবে এবং এ বিষয়টি খাদ্য মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে