টাচ নিউজ ডেস্ক: দেশে দ্বিতীয় দিনের মতো জ্বালানি তেল ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ার প্রতিবাদে চলছে পরিবহন ধর্মঘট। সড়কে কোনো বাস। রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে কিছু বিআরটিসির বাস চলাচল করলেও বাদুড়ঝোলা অবস্থা।

শনিবার (৬ নভেম্বর) সকাল থেকেই রাস্তায় যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে।

তবে সড়কে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, রিকশা, লেগুনা চলাচল করলেও প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম। এসব যানবাহনে নেওয়া হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া। বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ভাড়ায়ই গন্তব্যে যেতে হচ্ছে যাত্রীদের।

বেসরকারি বাস না চলায় সড়কের আর যাত্রীদের দখল নেয় রিকশা, সিএনজি, ব্যক্তিগত গাড়ি ও মোটরসাইকেল। অ্যাপের বদলে বেশির ভাগ মোটরসাইকেল খ্যাপে চলছে।

ধর্মঘটের কারণে অটোরিকশা, রিকশা, লেগুনায় নেওয়া হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া। বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ভাড়ায়ই গন্তব্যে যেতে হচ্ছে যাত্রীদের। কেউ কেউ নিরুপায় হয়ে ঝুঁকি নিয়ে ভ্যান, কাভার্ডভ্যানে চড়েও যাচ্ছেন কর্মস্থল ও গন্তব্যে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে