টাচ নিউজ ডেস্কঃ ঘূর্ণিঝড় আসানির প্রভাব পড়তে শুরু করেছে উপকূলীয় জেলা নোয়াখালীতে। ঝড়ের কারণে শুরু হওয়া গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি ও বৈরি আবহাওয়ার ফলে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে নোয়াখালী জেলা শহরের মধ্যে সব ধরনের নৌ যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

সোমবার (৯ মে ) হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সেলিম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, আবহাওয়া খারাপ থাকার পাশাপাশি বৃষ্টি শুরু হওয়ায় নোয়াখালী জেলা শহরের সঙ্গে হাতিয়া এবং বয়ারচর চেয়ারম্যান ঘাটে যাতায়াতকারী সি-ট্রাক ও ট্রলার চলাচল বন্ধ রয়েছে। এর ফলে দ্বীপ এই উপজেলায় কেউ আসতে অথবা বের হতে পারছেন না।

ইউএনও সেলিম হোসেন বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় হাতিয়ার সবকটি সাইক্লোন সেন্টার ও উঁচু স্থাপনা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। মানুষের জানমাল রক্ষায় সকাল থেকে হাতিয়া-বয়ারচর চেয়ারম্যান ঘাট সি-ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে। সব নৌযানকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ স্থানে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জেলা আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, সকাল থেকে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় আসানির কারণে উপকূলীয় এলাকায় ২ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়া খারাপ হলে সংকেতের মাত্রা আরও বাড়তে পারে।

নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে নৌ চলাচল শুরু হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে