টাচ নিউজ ডেস্ক: খুলনার করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সুচিকিৎসা এবং বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা সরবরাহের লক্ষে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৩ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব রকিবুল ইসলাম বকুল প্রতিষ্ঠিত ‘গণমানুষের স্বাস্থ্যসেবা ও বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টারের’ তৃতীয় কার্যালয়ের উদ্ধোধন করা হয়েছে।

বুধবার (৫ আগস্ট) বিকাল ৫ঃ৩০টায় খুলনা মহানগরীর খানজাহান আলী থানার অন্তর্গত ফুলবাড়িগেট বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় এ করোনা সাপোর্ট সেন্টার উদ্ধোধন করা হয়।

বিএনপি নেতা রকিবুল ইসলাম বকুলের সার্বিক সহযোগিতা ও দিকনির্দেশনায় এবং খালিশপুর, দৌলতপুর ও খানজাহান আলী থানা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের তত্বাবধানে ‘বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টারের’ তৃতীয় কার্যালয়ের উদ্ধোধন করা হয়।

উল্লেখ্য যে, এর আগে খুলনার দৌলতপুর থানার মিনাক্ষী সিনেমা হলের সামনে ‘বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টারের’ প্রথম কার্যালয় এবং খালিশপুর থানার ১২নং ওয়ার্ডের মারোয়াড়ী গেটে দ্বিতীয় কার্যালয়ের উদ্ধোধনের মাধ্যমে অত্র দুই থানার করোনা আক্রান্ত রোগীদের বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা ও ওষুধপত্র সরবরাহ করা হচ্ছে। ২০টি নতুন অক্সিজেন সিলিন্ডার এবং বিপুল সংখ্যক বিভিন্ন ওষুধপত্র নিয়ে ‘বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টারের’ সেচ্ছাসেবীরা খানজাহান আলী থানায় আজ থেকে প্রতিষ্ঠিত তৃতীয় কার্যালয় থেকে এ থানার করোনা আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিয়ে যাবে। বর্তমানে ‘বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টারের’ অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংখ্যা শতাধিক।

সরকারি বিএল কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি রুবায়েত হোসেন বাবুর সভাপতিত্বে এবং বিএনপি নেতা সৈয়দ এনামুল হাসান ডায়মন্ডের সঞ্চালনায় উক্ত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা মহানগর বিএনপির অন্যতম সহ সভাপতি স ম আব্দুর রহমান। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা মহানগর বিএনপি নেতাঃ শেখ জাহিদুল ইসলাম, শাহিনুল ইসলাম পাখি, শেখ সাদী, মুরশিদ কামাল, আবুল কালাম জিয়া, বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, কাজী মিজানুর রহমান, শেখ ইমাম হোসেন, আবু সাইদ হাওলাদার আব্বাস, মোঃ আলমগীর হোসেন, শেখ আনছার আলী, মতলেবুর রহমান মিতুল, মুন্সী আঃ রব, আশরাফ ঢালী, মোঃ মিজানুর রহমান, মিনা মুরাদ হোসেন, এমদাদুল হক, জামাল হোসেন, জামাল উদ্দিন, আনিছুর রহমান নান্টু, হুমায়ুন কবির, আনোয়ার হোসেন, খয়বার হোসেন, মোস্তফা আকন, জাকির হোসেন, সান্টু, সেলিম আহম্মেদ, শেখ আঃ হালিম, মোঃ আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।

যুবদল নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন’ মাহবুব হাসান পিয়ারু, কাজী নেহিবুল হাসান নেহিম, সৈয়দ মেহেদী মাসুদ সেন্টু, আব্দুল আজিজ সুমন, আসাদুর রহমান, মোল্লা সোলায়মান, এম এম জসিম, সুমন আহম্মেদ, ছাবরুল ইসলাম, মঈনউদ্দিন নয়ন, শামীম হোসেন, সামাদ হোসেন, গোলাম কিবরিয়া হোসেন, নাজমুল হোসেন বাবু, জসীমউদ্দীন ডেভিট, ইনামুল হোসেন, শাহাদাত হোসেন সাজু, ফয়সাল কবির বাবু, জাহিদ ইসলাম, হাবিবুর রহমান, মারুফ হাওলাদার, শহিদুল ইসলাম সোহেল, সৈয়দ মাইনুল ইসলাম, চয়ন শরীফ, মাসুম খান, বাপ্পি, জিয়া, হাসান, পলাশ, মুন্না, রাজু, সোহেল, মামুন, শাহিন, জসিম, ওবায়দুল, হানিফ, ফারুক হোসেন প্রমুখ।

সাবেক ছাত্রদল নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সুলতান মাহমুদ, নুুরুজ্জামান নিশাত, ইঞ্জিঃ নুর ইসলাম বাচ্চু, রিয়াজ শাহেদ প্রমুখ।

সেচ্ছাসেবক দল নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, একরামুল হক হেলাল, আলহাজ্ব আলামিন, মহিদুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম বাচ্চু, আলাউদ্দিন তালুকদার, আল আমিন সরদার রতন, বেল্লাল হোসেন, মোশাররফ সরদার, কাজী বেল্লাল, মেহেদী হাসান মামুন, আঃ রাকিব প্রমুখ।

ছাত্রদল নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, তাজীম বিশ্বাস, হেদায়েতউল্লাহ দিপু, পারভেজ হোসেন মিজান, ইলিয়াস সর্দার, মোঃ আল আমিন লিটন, মাসুম বিল্লাহ, হাবিবুর রহমান বিপ্লব, ফয়সাল আহমেদ, রফিকুল ইসলাম, সিয়াম হোসেন, তাজিম, মেহেদী হাসান, মানিক মোল্লা, তরিকুল ইসলাম জনি, সোহাগ, বিশাল মুন্সি, মামুন, রুবেল, হাসান, মিরাজুল ইসলাম, মোঃ রাসেল শেখ, মেহেদী হাসান, মোঃ রনি শেখ, রিপ্পি, আলআমিন অপি, সালমান মেহেদি প্রমুখ।

শ্রমিকদল নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কাজী শহিদুল ইসলাম শহিদ, সরদার শাহিন, জসিমউদ্দীন ইলিয়াস হোসেন, কবির বাবু, বারেক, ইব্রাহিম আদু, জনি প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে