টাচ ‍নিউজ ডেস্কঃ খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সারের উৎপাদন বৃদ্ধিতে জোর দিচ্ছে সরকার বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

শনিবার নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় “ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রকল্প” পরিদর্শন কালে তিনি একথা বলেন।

এসময় মন্ত্রী বলেন, দেশে বছরে ইউরিয়া সারের চাহিদা প্রায় ২৬ লাখ মেট্রিক টন। এর মধ্যে আমদানি করতে হয় প্রায় ১৬ লাখ মেট্রিক টন। আমদানি নির্ভরতা কমানো ও উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য নরসিংদীর পলাশ ও ঘোড়াশাল সার কারখানা দুটিকে একত্রিত করে ইউরিয়া সার উৎপাদনে নতুন এই প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলেছে।

এ পর্যন্ত প্রকল্পের শতকরা ৫৩ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। ২০২৩ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই নির্ধারিত প্রকল্পটি উৎপাদনে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে এটিই হবে বাংলাদেশের বৃহত্তম সার কারখানা।

মন্ত্রী সারের উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি কৃষকদের সুবিধায় সরকারি সংস্থাগুলো-কে একসাথে কাজ করার ওপর জোর দেয়ার কথা বলেন। বিশেষ করে ডিলার ও প্রান্তিক পর্যায়ে সার সরবরাহ নির্বিঘ্ন করতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেড (বিসিআইসি) এর চেয়ারম্যান, “ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রকল্প” এর প্রকল্প পরিচালকসহ শিল্প মন্ত্রণালয় ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে