টাচ নিউজ ডেস্কঃ কুড়িগ্রামের রৌমারীতে পারিবারিক কলহের জেরে ৮ মাস বয়সী ছেলে শিশু ও স্বামী সোহেল রানাকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে শারমিন খাতুন নামের এক গৃহবধূকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের কাউনিয়ারচর মধ্যপাড়া শালুর মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রায় দুই বছর আগে সোহেল-শারমিনের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে শান্ত মিয়া (৮ মাস) নামে এক ছেলে সন্তানও রয়েছে। সম্প্রতি তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। এরই জেরে শনিবার সন্ধ্যায় গৃহবধূ শারমিন সন্তান শান্তকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো ছুরি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে। এসময় স্বামী সোহেল সন্তানকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাকেও এলোপাথাড়ি কোপায়। পরে আশপাশের লোকজন সোহেল ও শান্তকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, গৃহবধূ শারমিন খাতুনের নামে মামলা দিয়ে আজ সকালে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে