টাচ নিউজ ডেস্কঃ গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বক্তারপুর এলাকায় যৌতুক না পেয়ে নির্যাতন করে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) সকাল এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত ওই গৃহবধূ হলেন, উপজেলার কলা বাঁধা এলাকার রসুল উদ্দিনের মেয়ে রুপা আক্তার (২৩)।

আটককৃত স্বামী হলেন, কালিয়াকৈর উপজেলার বক্তারপুর এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে কামরুল ইসলাম (৩২)।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ৯ মাস আগে কালিয়াকৈরে উপজেলা বক্তারপুর এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে কামরুল হাসান সাথে বিয়ে হয় তার। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য নানান ভাবে নির্যাতন করতেন। কয়েকদিন আগেও কয়েক লাখ টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে রুপাকে শারীরিক নির্যাতন বাড়িয়ে দেয় স্বামীর পরিবার।

নির্যাতনের এক পর্যায়ে রুপা শশুড় বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি চলে আসে। পরে তার স্বামী কামরুল হাসান আর নির্যাতন করবে না এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে রুপাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। কিন্তু আবারও তার ওপর অত্যাচার করে হত্যা করে এবং পরে গৃহবধুকে স্বামীর পরিবার উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে থানা পুলিশ।

কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শন (এসআই) জুয়েল জানান, লাশটি গাজীপুর তাজউদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে