টাচ নিউজ ডেস্ক: পাঞ্জশির দখলদার আহমাদ মাসুদের ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ)-এর মুখপাত্র ফাহিম দাস্তি এক টুইটে বলেছেন, পাঞ্জশির বিভিন্ন জেলায় প্রায় ৬০০ তালেবান নিহত হয়েছেন। আটক হয়েছে বা আত্মসমর্পণ করেছে প্রায় এক হাজারের বেশি তালেবান।

আরো পড়ুন: পাঞ্জশির প্রদেশের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ তালেবানদের হাতে

আফগানিস্তানের সবচেয়ে ছোট প্রদেশগুলোর মধ্যে পাঞ্জশির অন্যতম। এই প্রদেশটি ছাড়া বাঁকি ৩৩টি প্রদেশ নিজেদের দখলে নিয়েছে তালেবান সদস্যরা। কিন্তু অন্য প্রদেশগুলোর মতো পাঞ্জশিরকে এতো সহজে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিতে পারছেনা তালেবান।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) দুর্গম অঞ্চল পাঞ্জশির দখলের অভিযান শুরু করে তালেবান সদস্যরা।

পাঞ্জশির দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চল হওয়ায় তালেবান সদস্যরা সেখানে সুবিধা করতে পারছে না। প্রদেশটি দখলের বিষয়ে দুই পক্ষ থেকে দাবি করা হলেও সেখানে আসলে কি অবস্থা বিরাজ করছে তা এখনও পরিষ্কার নয়।

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “পাঞ্জশির প্রদেশের নেতা আহমাদ মাসুদ এবং আফগানিস্তানের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্ট (এনআরএফ) অন্তত এক হাজার ৫০০ তালেবান সদস্যকে আটক করেছে বলে দাবি করেছে।”

এদিকে তালেবান মুখপাত্র বেলাল করিমি এক টুইটে বলেছেন, “পাঞ্জশির প্রদেশের সাতটি জেলার মধ্যে পাঁচটি জেলা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে তালেবান সদস্যরা। এখন তারা প্রদেশটির কেন্দ্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে