টাচ নিউজ ডেস্কঃ পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান বিরোধী দল তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের ব্যবহার করা দুটি মোবাইল ফোন চুরি হয়ে গেছে। তাকে হত্যার ষড়যন্ত্রকারী সকলের নাম সম্বলিত একটি ভিডিয়ো ক্লিপ আছে, এমন দাবি করার পর এ ঘটনা ঘটল।

ইমরান খান শনিবার দাবি করেন যে, তাকে হত্যারচেষ্টা চালানো হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, এ সংক্রান্ত একটি ভিডিয়ো নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে। শনিবার শিয়ালকোটে জনসমাবেশে ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি এই চমকপ্রদ দাবি করেন। ইমরান খান তার সমর্থকদের উদ্দেশে আরও বলেন, তার জীবননাশের চেষ্টা করা হয়েছে।

ইমরান খানের মুখপাত্র শাহবাজ গিল সোমবার (১৭ মে) এক টুইট বার্তায় জানান, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান শনিবার পাকিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় পাঞ্জাব প্রদেশের শিয়ালকোট শহরে পিটিআই আয়োজিত এক বিশাল জনসমাবেশে ভাষণ দেন। ওই কর্মসূচি শেষ করে ফেরার সময় শিয়ালকোট বিমানবন্দর থেকে তার দুটি ফোন চুরি হয়ে যায়।

শাহবাজ গিল অভিযোগ করে আরও বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও ইমরান খানকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি। এ সুযোগে তার দুটি ফোন চুরি হয়েছে গেছে। তবে তিনি (ইমরান খান) যে ভিডিয়োর কথা বলেছেন তা ওই ফোনে পাওয়া যাবে না বলেও দাবি করেন তিনি।

এদিকে, সরকারের তরফে তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয় কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। যদিও ইমরান খানের নিরাপত্তা জোরদারে সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নিদের্শ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। দেশটির রাষ্ট্রীয় রেডিও চ্যানেল রেডিও পাকিস্তানের তথ্য অনুযায়ী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ ইমরান খানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফকে অবহিত করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী পিটিআই প্রধানকে ‘সর্বোচ্চ নিরাপত্তা’ প্রদানের জন্য নির্দেশ দেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে