টাচ নিউজ ডেস্কঃ সরকারি চাকরিতে কর্মচারীদের দীর্ঘদিনের মূল্যায়ন পদ্ধতি বদলে যাচ্ছে। থাকছে না এসিআর (বার্ষিক গোপনীয় অনুবেদন)। সেখানে আসছে কর্মভিত্তিক নতুন অনলাইন মূল্যায়ন ব্যবস্থা এপিএআর (অ্যানুয়াল পারফরমেন্স অ্যাপ্রাইজাল রিপোর্ট-বার্ষিক কর্মকৃতি মূল্যায়ন প্রতিবেদন)।

এজন্য ‘বার্ষিক কর্মকৃতি মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুশাসনমালা, ২০২২’-এর খসড়া প্রস্তুত করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে চলছে সফটওয়্যার তৈরির কাজও।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বর্তমান ব্যবস্থায় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মন-মর্জির ওপর নির্ভর করে অধস্তনদের মূল্যায়ন। সেভাবে বিবেচনায় আসে না কর্মদক্ষতার বিষয়টি। তাই এসিআরের ভিত্তিতে পদোন্নতি, পদায়নের ক্ষেত্রে কর্মকর্তারা অনেক সময়ই সঠিকভাবে মূল্যায়িত হন না। সরকারও সঠিক পদের জন্য সঠিক ব্যক্তিকে নির্বাচন করতে পারেন না। মূলত এপিএআর ব্যবস্থায় এসব সমস্যা দূর হবে।

খসড়া অনুশাসনমালা অনুযায়ী, এটি হবে সফটওয়্যারভিত্তিক কর্মকর্তাদের মূল্যায়ন ব্যবস্থা। মূল্যায়নের মূল ভিত্তি হবে কর্মকৃতি বা পারফরমেন্স। সিস্টেমে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রতিবেদন প্রণয়নে সহায়তা করবে। বছরের শুরুতে কর্মকর্তারা কর্মপরিকল্পনা দেবেন। বছর শেষে নিজেই করবেন নিজের কাজের মূল্যায়ন। মূল্যায়নে নম্বরের ভিত্তিতে থাকবে পাঁচটি গ্রেড। উচ্চতর কর্মকৃতি দেখানো ‘এ-প্লাস’ ও ‘এ’ গ্রেড পাওয়া কর্মকর্তাদের জন্য থাকবে প্রণোদনা। বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির (এপিএ) সঙ্গে নতুন এ ব্যবস্থা সমন্বয় করা হবে। এই ব্যবস্থায় সচিব ও এর উপরের পর্যায়ের কর্মকর্তাদের মূল্যায়ন হবে এপিএ’র মাধ্যমে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ক্যারিয়ার প্ল্যানিং ও প্রশিক্ষণ (সিপিটি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. সহিদ উল্যাহ জাগো নিউজকে বলেন, ‘এখন কর্মকর্তাদের মূল্যায়ন এনালগ পদ্ধতিতে হয়। এসিআরের কাগজের ফরম পূরণ করে দিয়ে থাকি, প্রযুক্তিনির্ভর নয়। কিন্তু আমরা যেটা করতে চাচ্ছি সেটা ওয়েব বেইজড হবে।’

তিনি বলেন, ‘এখন এসিআর ব্যবস্থায় কর্মকর্তাদের ব্যক্তিগত ও পেশাগত কিছু প্রবণতা বা বৈশিষ্ট্যের ওপর ভিত্তি করে নম্বর দেওয়া হয়। তাদের পারফরমেন্স মূলত এতে প্রতিফলিত হয় না। কর্মের মূল্যায়ন বর্তমান ব্যবস্থায় সেভাবে নেই। এখন আমার ঊর্ধ্বতন কর্মপক্ষ আমার প্রতি ধারণা থেকে মূলত আমাকে মূল্যায়ন করে থাকেন।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে