টাচ নিউজ ডেস্ক: আফগানিস্তানে টেলিভিশন পরিচালনার নতুন নীতিমালা ঘোষণা করেছে তালবান প্রশাসন। সেখানে টিভি নাটকে নারীদের উপস্থিতি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নারী সাংবাদিকতা এখনো নিষিদ্ধ না হলেও টেলিভিশনে নারী উপস্থাপিকাদের হিজাব ব্যবহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্রদের সৈন্য প্রত্যাহারের সুযোগে আগস্টের ১৫ তারিখ তালেবান আফগানিস্তানের শাসন ক্ষমতা দখল করে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির নারী রাজনীতিবিদদের অনেকে দেশ ছাড়েন। নারী ক্রীড়াবিদ, অভিনয় শিল্পী, সাংবাদিক, অধিকারকর্মীদের অনেকেই চলে যান আত্মগোপনে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত তালেবান শাসনামলে পুরুষের লিখিত অনুমতি ছাড়া নারীদের ঘরের বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ ছিল। বয়ঃপ্রাপ্ত হলেই মেয়েদের স্কুলে যাওয়া ছিল নিষিদ্ধ, নারীদের চাকরি করারও সুযোগ ছিল না। দুই দশক পর আবারও আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তালেবান বলেছিল, তাদের শাসনে নারীরা অধিকার শরিয়া আইন অনুযায়ী পাবে। এখন ধীরে ধীরে তারা পুরনো সেই কঠোর নিয়মের দিকেই যাচ্ছে বলে অনেকে আশঙ্কা করছেন।

বিবিসি বলছে, আফগান টেলিভিশন স্টেশনগুলোর জন্য মোট আটটি বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে। শরিয়া আইন কিংবা আফগান মূল্যবোধের বিরুদ্ধে যায় এমন চলচ্চিত্র টেলিভিশনে দেখানো যাবে না। এমন কোনো ভিডিও দেখানো যাবে না। যেখানে পুরুষের শরীরের ব্যক্তিগত কোনো অংশ প্রকাশ্যে আসে। কমেডি কিংবা বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানে এমন কিছু দেখানো যাবে না, যাতে ধর্মের অবমাননা হয় বা আফগানদের জন্য আপত্তিকর বলে বিবেচিত হতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে