টাচ নিউজ ডেস্কঃ রোহিঙ্গা গণহত্যার শুনানি আগামী সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে শুরু হচ্ছে।

নেদারল্যান্ডের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত টুইট বার্তার মাধ্যমে শুনানি সম্পর্কে গণমাধ্যমকে অবহিত করেন। সোমবার স্থানীয় সময় ১টা ৩০ মিনিটে শুনানির কার্যক্রম শুরু হবে। শুনানিটির দুটি পক্ষ হলো- মিয়ানমার ও গাম্বিয়া।

নতুন প্রেক্ষাপটে বার্মিজ জান্তার প্রতিনিধিরা নতুন রাউন্ডের শুনানিতে অংশগ্রহণ করবেন। রোহিঙ্গা সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে দেশটির গণহত্যার অভিযোগ শোনার জন্য আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে তারা চ্যালেঞ্জ জানাবেন বলে জানা গেছে। মহামারি কোভিড-১৯ সংকটের কারণে এবার অনলাইন শুনানি অনুষ্ঠিত শুরু হতে চলেছে।

২০১৯ সালে প্রথম গণশুনানিতে বর্তমানে জান্তা সরকারের হাতে বন্দি বার্মিজ গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি মিয়ানমারের পক্ষে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। যদিও এরপর থেকে সামরিক বাহিনী তাকে গৃহবন্দি করে রাখে।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৯ সালে সু চি নেদারল্যান্ডসের আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে একটি আইনি দলকে নেতৃত্ব দেন। পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া সেই বছরের ১১ নভেম্বর আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে মামলা করে। যেখানে মিয়ানমার গণহত্যা, ধর্ষণ এবং সম্প্রদায় ধ্বংসের মাধ্যমে ‘রোহিঙ্গাদের একটি দল হিসাবে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে’ ‘গণহত্যামূলক কাজ’ করেছে বলে অভিযোগ করা হয়।

উল্লেখ্য, গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলার শুনানির জন্য ২০১৯ সালের ১০ ডিসেম্বর থেকে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম ধাপে ১০ ডিসেম্বর শুনানি করে গাম্বিয়া। এরপর ১১ ডিসেম্বর শুনানি করে মিয়ানমার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে