ইকবাল আহমেদ লিটনঃ বেশীদিন আগের ঘটনা না, ঘটনা ২০০২ সালের ৮ই জুন বুয়েট ছাত্রদলের সন্ত্রাসী মুকি এবং এসএম হল ছাত্রদলের টগর গ্রুপের গুলিতে নিহত হন কেমিকৌশল ১৯৯৯ ব্যাচের ছাত্রী সনি। তার হত্যাকারীদের বিচারের দাবী করে সাধারন ছাত্র ছাত্রীরা আজকের মতো বিনা বাধায় এবং নির্যাতন বিহীন পরিবেশ পাননি। পুলিশের বেধরক পিটুনি ছিলো সেদিনের দাবীর বিপরিতে। আজ আবরার হত্যার বিচার চাইতে না চাইতেই পুলিশ, অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাদের দ্রুততম সময়ে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় এনেছে। কোন লাঠিচার্জ হয়নি, গ্রেফতার হয়নি আন্দোলন -কারীদের কেউ, উল্টো অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতার। এটাই শেখ হাসিনা সরকারের বিশেষ দিক। তিনি কখনোই হত্যাকারীদের প্রশ্রয় দেন না, তা সে নিজ দলের হোক না কেন। আবরার হত্যার বিচারের দাবী নিয়ে আমার আপত্তি নেই, তবে উস্কানী দিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের অপচেস্টা কখনোই বরদাস্ত করা হবে না।

সন্ত্রাসী কোনও দলের হতে পারেনা। সন্ত্রাসীর একমাত্র পরিচয় সে সন্ত্রাসী। দেশরত্ন শেখ হাসিনার আইনের শাসন বড্ড কঠিন। অপরাধ করে নিজ দলের নেতাকর্মী রেহাই পাচ্ছেনা। টেনেহিচড়ে জনসম্মূখে ক্ষমতাসীন দলের অপরাধীদের আটকের এই দৃশ্য বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিরল ঘটনা। বিএনপি -জামায়াত জোট সরকারের সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত ছাত্রলীগের এইট মার্ডার, ত্রিপল মার্ডার, ডাবল মার্ডার হত্যাকাণ্ডের খুনিরা যেভাবে রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতা নিয়ে দাপটের সাথে দেশ ছেড়েছিলো সে পথে শেখ হাসিনার সরকার হাটছে না। যাইহোক, শিশু সামিউলকে হত্যা করেছিল মসজিদের ইমাম। এজন্য কি বাংলাদেশ ইমাম সমিতি দায়ী? ছাত্রী ধর্ষণকারী শিক্ষক পরিমলের কথা কি মনে আছে? এই দায় কি বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির! বাবা মায়ের আদরের সন্তান ঐশীর কথা নিশ্চয় ভুলে যান নি? এজন্য কি বিশ্বের সকল সন্তানকুল দায়ী? যারা ছাত্রলীগকে অপরাধীর কাঠগড়ায় দাড় করাতে চাইছে তারাতো আজিবনই ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। মনে রাখবেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এশিয়ার সর্ববৃহত ছাত্র সংগঠন। বর্তমান সরকারের মত অতীতের কোন সরকার তাদের দলীয় এমপি (রানা), পুত্র, জামাই (মায়া), যুবলীগ (সম্রাট) এর মত নেতাদের গ্রেপ্তার করেছে? আওয়ামী লীগ কি কোন খুনিকে বিদেশে হাই কমিশনার করেছে যেমন করেছিল জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর খুনিদের? বর্তমান সরকার কি ছাত্রলীগের কোনও অপকর্ম খালেদা জিয়া বা বিএনপির ঘাড়ে দিয়েছে যেমন খালেদা জিয়া বলেছিল শেখ হাসিনা ভ্যানিটি ব্যাগে ককটেল নিয়ে গিয়েছিল ২১ আগস্ট? শেখ হাসিনা কি কোন খুনি নেতাকে ফুলের মালা দিয়েছে, যেমন দিয়েছিল খালেদা জিয়া সন্ত্রাসী টগর কে? ছাত্র লীগের কাউকে হত্যার জন্য বিএনপি, জামাত কি কখন ও কাউকে শাস্তি দিয়েছে যেমন আজকে আবরার হত্যায় জড়িত দের গ্রেপ্তার করা হল? হত্যার পর শিবিরের সাপের বাচ্চারা উল্লাস ও আনন্দ করেছিল কেন? অন্য দলের কেউ মৃত্যুবরণ করলে শিবিরকে দেখেছি “উল্লাস করতে, আলহামদুলিল্লাহ বলতে, শোকর আদায় করতে, জাহান্নাম কামনা করতে।” আওয়ামী লীগের কাউকে এই রকম করতে দেখেছেন? আওয়ামী লীগ ও আমাদের নেত্রী অন্যায়কে অন্যায় বলতে জানে, প্রতিবাদ করে এবং করায়। আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা যখন বিএনপি জামাতের হাতে নির্যাতিত হচ্ছিল তখন কি বিএনপি জামাতের মিচকা শয়তান প্রতিবাদ করেছিল?

পরিশেষে, হে প্রজন্ম তুমি কি পরিবর্তন দেখতে পাও? আমিতো নষ্ট রাজনীতির মাঝেও শেখ হাসিনার শুদ্ধাচারের রাজনীতির আপ্রান চেষ্টার দৃশ্য দেখতে পাচ্ছি। আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানায়, অপরাধীদের অতি দ্রুত গ্রেফতারের জন্য। আবরার সহ সকল হত্যাকান্ডে জড়িত সকল সন্ত্রাসীকে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে করে, ভবিষ্যতে আর কোন আবরারকে অকালে প্রান হারাতে না হয়। হাইব্রিড মুক্ত আওয়ামী লীগ ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের জন্য বর্তমান গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া চলমান থাকুক, সৎ নেতা দায়িত্ব পাক, দেশ এগিয়ে যাক। বিচার হীনতার সংস্কৃতি থেকে বের হতে শেখ হাসিনার পাশে থাকুন।

লেখকঃ সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও সদস্য সচিব- আয়ারল্যান্ড আওয়ামী লীগ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে