পাথরঘাটা প্রতিনিধি: দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসভা, নামে আছে কামে নেই। দ্বিতীয় শ্রেণির পৌরসভার দু-একটি সড়ক বাদে সকল সড়কই খানাখন্দে ভরা। এককথায় অবিভাবকহীন পাথরঘাটা পৌরসভা! সব কিছু থেকেও যেন কিছুই নেই। এমন ক্ষোভই জনমনে, যার বহিপ্রকাশ প্রতিবাদে রুপ নেয়।

‘নাগরিক কথা পাথরঘাটা’ অনলাইন ভিত্তিক সেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে পাথরঘাটা পৌর শহরের প্রধান সড়ক অস্তিত্বহীন হয়ে পড়ায় সেই সড়কগুলোকে অস্তিত্বে ফিরিয়ে আনতে আজ সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে বৃষ্টিতে ভিজে পাথর, ইটেরখোয়া ও বালুর মিশ্রন দিয়ে সড়ক সংস্কার করছেন তারা। এ কাজের সাথে ঐক্যমত পোষন করেন পাথরঘাটা উপজেলা নাগরিক অধিকার ফোরামসহ স্থানীয় নাগরিকরা।

নাগরিক কথা পাথরঘাটার পক্ষে রফিকুল ইসলাম কাকন ও খলিলুর রহমান কাজী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পাথরঘাটা পৌর শহরের প্রধান সড়কগুলো ব্যাবহারের অনুপযোগী হয়ে পরে। দীর্ঘদিন ধরে পৌর কতৃপক্ষের কছে ধর্ণা দিলেও কোন সুরহা না পাওয়ায় আমরা নিজেদের পকেটের টাকা দিয়ে সড়ক গুলোর খানাখন্দের কাজ শুরু করেছি। পৌর শহরের উন্নয়নের জন্য মেয়েরের কাছে বিভিন্ন সময় গেলে তিনি সকল সময়ই বলেন কোন ফান্ড নেই।

তারা আরও বলেন, আমাদের এ কাজ অব্যহত থাকবে। যেখানেই দেখবো নাগরিক বঞ্চিত হচ্ছে সেখানেই আমরা থাকবো।

পাথরঘাটা পৌরসভার কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান খান ও রোকনুজ্জামান রুকু বলেন, যে কাজ আমাদের করার কথা ছিল সে কাজ নাগরিকরা করছেন এটি সত্যিতার অর্থে প্রশংসনীয়। আমরা কাজ না করতে পারা বা বরাদ্দ আনতে না পারা এটি পৌর কর্তপক্ষের ব্যর্থতা।

পাথরঘাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হোসেন আকন সাংবাদিকদের মুঠোফোনে বলেন, শুনেছি স্থানীয় কিছুসংখ্যক যুবক সড়ক মেরামত করতেছে। আমি তাদের সুবিধার্থে রোলার পাঠিয়ে দিয়েছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে