টাচ নিউজ ডেস্ক: বরিশালের আড়িয়ালখাঁ নদীর মীরগঞ্জ খেয়াঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের প্রতিবাদ করায় এক যাত্রীকে বেদম মারধর করে ট্রলার থেকে নদীতে ফেলে বাঁশ দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। ফেসবুকে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় নির্যাতিত যাত্রীর মামলা দায়েরের পর পুলিশ অভিযুক্তদের একজনকে গ্রেফতারও করে।

এদিকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং যাত্রী নির্যাতনের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ খেয়া যাত্রীরা। যাত্রী নির্যাতন মামলার অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। অপরদিকে খেয়াঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

জানা যায়, অসুস্থ মা মাসুদা বেগমকে ডাক্তার দেখাতে গত ১৯ জুলাই জেলার মুলাদী পৌর এলাকা থেকে উজিরপুর যাচ্ছিলেন রাসেল হাওলাদার। মীরগঞ্জ খেয়া পার হবার সময় তার কাছে বাড়তি ভাড়া চাওয়া হয়। অতিরিক্ত ভাড়া দিতে অস্বীকার করেন রাসেল। খেয়াটি বাবুগঞ্জ প্রান্তে মীরগঞ্জ ঘাটে পৌঁছার পর সব যাত্রী নামিয়ে দেয় খেয়ার লোকজন। এ সময় রাসেলের কাছে ফের অতিরিক্ত ভাড়া দাবী করে তারা। তবে তিনি আবারও অতিরিক্ত ভাড়া দিতে অস্বীকার করলে ইজারাদারের লোকজন রাসেলকে চ্যাংদোলা করে খেয়া ট্রলারে উঠিয়ে মাঝ নদীতে নিয়ে বেদম মারধর করে।

একপর্যায়ে তাকে মাঝ নদীতে ফেলে দেয় তারা। তিনি সাঁতরে তীরে উঠতে চাইলে বাঁশ দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে তারা। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় কোনোমতে প্রাণে বেঁচে রাসেল। দূর থেকে কেউ একজন পুরো ঘটনা ভিডিও করে ফেসবুকে পোস্ট দেয়। বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে